• Home /Exam Details (QP Included) / Preliminary Exam / Mission 2021 – W.B.C.S. Prelims – নেগেটিভ মার্কিং এড়াতে কোন পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে ।
  • Mission 2021 – W.B.C.S. Prelims – নেগেটিভ মার্কিং এড়াতে কোন পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে ।
    Posted on December 23rd, 2020 in Preliminary Exam, Strategy
    Tags: , ,

    Mission 2021 – W.B.C.S. Prelims – নেগেটিভ মার্কিং এড়াতে কোন পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে ।

    By Dipayan Ganguly, WBCS Gr A
    প্রিলি হোক বা অন্য কোনো MCQ টাইপের পরীক্ষা, নেগেটিভ মার্কিং যে রীতিমত যন্ত্রণা, তা বলাই বাহুল্য। তবে সঠিক পন্থা অবলম্বন করলে এটা এড়ানো সম্ভব।Continue Reading Mission 2021 – W.B.C.S. Prelims – নেগেটিভ মার্কিং এড়াতে কোন পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে ।
     
    কিভাবে? দুটি উপায়ে—
     
    ১) প্রস্তুতি নেওয়ার সময় Strategic planning
     
    ২) পরীক্ষার hall এ কিছু best practices অবলম্বন করা
     
    প্রথমটা আলোচনা করা যাক।
     
    আগের পোস্টে আমি বলেছিলাম যে প্রস্তুতি নেওয়ার সময় শুধুমাত্র MCQ সমাধান করলে চলবে না। এর চাইতে আরও comprehensive উপায় হল MCQ এর থেকে option ছাড়া প্রশ্ন সমাধান করা। এর জন্য একটা কাগজ নিয়ে বইয়ের প্রত্যেকটা প্রশ্নের option গুলি ঢেকে রাখ যাতে মনে হয় যে সেই প্রশ্নের আদৌ কোনো option নেই। প্রত্যেকটা প্রশ্নের উত্তর আলাদা একটা খাতায় লিখে রাখ। এর ফলে তুমি শুধুমাত্র সেই প্রশ্নগুলির উত্তর দিতে পারবে যেগুলির উত্তর সম্পর্কে তুমি নিশ্চিত। অনেক সময় বই থেকে MCQ সমাধান করতে গিয়ে আন্দাজে আমরা সঠিক option টি চয়ন করে ফেলি। এতে আমাদের প্রস্তুতিতে ঠিক কোন জায়গায় খামতি আছে সেটি বোঝা যায় না। কিন্তু option ছাড়া সমাধান করলে আমরা বুঝে যাব কোন অংশটি আমাদের ঠিকঠাক তৈরি হয়েছে এবং কোন অংশটি তৈরি হয়নি। যে জায়গাগুলি ঠিকঠাক পড়া হয়ে ওঠেনি, সেগুলির জন্য দৈনিক ১ ঘন্টা সময় বরাদ্দ করে তৈরি করে নাও।
    এভাবে সঠিক self assessment হবে যা পরীক্ষার দিন অবধি তোমার confidence level কে আলাদা উচ্চতায় পৌঁছে দেবে।
     
    দ্বিতীয়টি হল পরীক্ষার hall এর best practices অবলম্বন করা। পরীক্ষা তো আড়াই ঘন্টার। প্রথম ১ ঘন্টায় শুধুমাত্র সেই সকল প্রশ্নের উত্তর দাও যেগুলি সম্পর্কে তুমি ১০০ শতাংশ নিশ্চিত। এর পরের ঘন্টায় কেবলমাত্র Maths/GI এর প্রশ্নগুলি ধীরেসুস্থে সমাধান কর। এটি হয়ে গেলে হিসাব করে দেখ ঠিক কতগুলি প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে ৩ টি possibility রয়েছে—
     
    ক) ১২০+ সঠিক
     
    খ) ১০০-১২০ টি সঠিক
     
    গ) ১০০ এর কম সঠিক
     
    প্রথম ক্ষেত্রে তুমি বাড়তি ১০ শতাংশের বেশি attempt করবে না। তুমি কেবলমাত্র সেগুলি attempt করবে যেখানে মাত্র দুটি option এর মধ্যে তোমার সন্দেহ রয়েছে। অর্থাৎ তুমি যদি ১২৫ টি সঠিক উত্তর করে থাক, তাহলে ১০ শতাংশ অর্থাৎ বড়জোর ১২ টি বাড়তি প্রশ্নের উত্তর দেবে। ১২ টির মধ্যে যদি অর্ধেক সঠিক ও অর্ধেক ভুল হয়, তাহলেও তোমার স্কোর ১৩০ এর মত হবে।
     
    দ্বিতীয় ক্ষেত্রে তুমি বাড়তি ২০ শতাংশ উত্তর দেবে, অর্থাৎ যদি ১১০ টি সঠিক হয় তাহলে বাড়তি ২২ টি প্রশ্নের উত্তর দেবে। এতে অর্ধেক ভুল হলেও স্কোর দাঁড়াবে ১১৭ মত।
     
    তৃতীয় ক্ষেত্রে তুমি বাড়তি ৩০ শতাংশ প্রশ্নের উত্তর দেবে। অর্থাৎ তুমি যদি ৯০ টি সঠিক উত্তর দিয়ে থাক, তাহলে বড়জোর বাড়তি ৩০ টি প্রশ্নের উত্তর দেবে যেখানে কেবলমাত্র দুটি option এর মধ্যে তোমার সন্দেহ আছে। এতে অর্ধেক ভুল হলেও তোমার স্কোর ১০০ হবে।
     
    এই সমস্ত কিছুই নির্ভর করছে প্রশ্নপত্রের মানের উপর। সঠিক strategy অবলম্বন করলে চিন্তার কোনো কারণ নেই।

     

    Please subscribe here to get all future updates on this post/page/category/website

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

     2019 2019 2019